DMCA.com Protection Status

কলকাতা হাইকোর্টে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ

Spread the love
data entry operator recruitment in west bengal
data entry operator recruitment in west bengal

কলকাতা হাইকোর্টে ডাটা এন্ট্রি অপারেটর নিয়োগ

data entry operator recruitment in west bengal : কলকাতা হাইকোর্টের অ্যাপেলেট সাইড ‘ডাটা এন্ট্রি অপারেটর’ পদে ১৫৩ জন ছেলেমেয়ে নেওয়া হচ্ছে। মাধ্যমিক পাশ ছেলেমেয়েরা কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনের ১ বছরের ডিপ্লোমা কোর্স পাশ হলে আবেদন করতে পারেন। কম্পিউটারে ঘন্টায় ৮,০০০ কী ডিপ্রেশন গতি থাকতে হবে। কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশনের ডিপ্লোমা কোর্স কোনো বিশ্ববিদ্যালয় বা এ.আই.সি.টি.ই -র অনুমোদিত প্রতিষ্ঠান থেকে পাশ করলে অগ্ৰাধিকার পাবেন।

বয়স –

বয়স হতে হবে:- ১-১-২০২১’র হিসাবে ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। তপশিলীরা ৫ বছর, ও.বি.সি’রা ৩ বছর, প্রতিবন্ধীরা ৫ বছর বয়সে ছাড় পাবেন।

বেতন

মূল মাইনে :- ২৪,১০০–৫৮,৫০০ টাকা।

শূন্যপদ:-

১৫৩ টি (জেনাঃ ৪৫, জেনাঃ ই.সি ২৪, জেনাঃ বধির প্রতিবন্ধী ২, জেনাঃ প্রতিবন্ধী (এল.ভি) ২, জেনাঃ প্রতিবন্ধী (লোকোমোটর/সেরিব্রাল পালসে) ১, জেনাঃ প্রাঃসঃকঃ ৬, জেনাঃ মেধাবী খেলোয়াড় ৩, তঃজাঃ ২১, তঃজাঃ ই.সি ৩,  ও.বি.সি -এ ক্যাটেগরি ১০, ও.বি.সি এ  ক্যাটেগরি ই.সি ৫, ও.বি.সি -বি ক্যাটেগরি ৮, ও.বি.সি -বি ক্যাটেগরি ই.সি ৩)।

প্রার্থী বাছাই পদ্ধতি –

প্রার্থী বাছাই হবে লিখিত পরীক্ষার মাধ্যমে। ১০০ নম্বরের লিখিত পরীক্ষায় ৫০ টি প্রশ্ন হবে এইসব বিষয়ে :- (১) কম্পিউটার প্রফিসিয়েন্সি, (২) জেনারেল নলেজ, (৩) অঙ্ক, (৪) ইংলিশ ল্যঙ্গোয়েজ।

প্রতিটি প্রশ্নে থাকবে ২ নম্বর। নেগেটিভ মার্কিং আছে। ১ টি প্রশ্নের ভুল উত্তরের জন্য প্রাপ্ত নম্বর থেকে ১ নম্বর কাটা হবে। সময় থাকবে ১ ঘন্টা।

সফল হলে ৪০০ নম্বরের ডাটা এন্ট্রি স্পিড টেস্ট হবে। এরপর হবে ১০০ নম্বরের ইন্টারভিউ। শুরুতে ২ বছরের প্রবেশেন। কবে কোথায় পরীক্ষা হবে তা অ্যাডমিট কার্ড ওয়েবসাইট থেকে ডাইনলোড করে নেবেন।

আবেদন পদ্ধতি –

দরখাস্ত করবেন অনলাইনে, ২৭ জানুয়ারির মধ্যে।

এই ওয়েবসাইটে :

https://www.calcuttahighcourt.gov.in/

অনলাইনে দরখাস্ত করার আগে বৈধ একটি ই-মেল আই.ডি থাকতে হবে। এছাড়াও পাশপোর্ট মাপের ফটো (১০০×১২০     পিক্সেল), সিগনেচার (১৬০×৭০ পিক্সেল), কাস্ট সার্টিফিকেট, প্রতিবন্ধী সার্টিফিকেট ও মেধাবী খেলোয়াড় সার্টিফিকেট স্ক্যান করে নেবেন।

প্রথমে ওই ওয়েবসাইটে গিয়ে যাবতীয় তথ্য দিয়ে সাবমিট করলে রেজিস্ট্রেশন আই.ডি ও পাশওয়ার্ড  পাবেন। এবার পরীক্ষা ফী বাবদ ৮০০(তপশিলী হলে ৪০০) টাকা ডেবিট কার্ড, ক্রেডিট কার্ড বা নেট ব্যঙ্কিং বা ইউ.পি.আই য়ে জমা দিতে পারবেন। টাকা জমা দেওয়ার পর সিস্টেম জেনারেটেড অ্যাপ্লিকেশন ফর্ম প্রিন্ট করে নেবেন। অনলাইনে ও অফলাইনে টাকা জমা দেওয়ার শেষ তারিখ ২৭ জানুয়ারি। আরো বিস্তারিত তথ্য পাবেন ওই ওয়েবসাইটে।

Leave a Reply

Your email address will not be published.