মিড ডে মিলের আলু চুরি করতে গিয়ে ধরা পরলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক

Spread the love
The acting headmaster was caught stealing potatoes from the mid-day-meal
মিড ডে মিলের আলু চুরি করতে গিয়ে ধরা পরলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক

মিড ডে মিলের আলু চুরি করতে গিয়ে ধরা পরলেন ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক

The acting headmaster was caught stealing potatoes from the mid-day-meal : মিড ডে মিল নিয়ে বরাবরই বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা যায় । তেমনই আরও একই সমস্যা উঠে এল নদীয়া জেলার নাজিরপুর বিদ্যাপীঠ বিদ্যালয়ে । বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক আলু চুরি করে বিক্রি করতে গিয়ে হাতে নাতে ধরা খেলেন ।

নদীয়া জেলার জনপ্রতিনিধি টিনা ভৌমিক সাহা মহাশয়া হাতেনাতে ধরলেন বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত শিক্ষক বিকাশ মন্ডলকে । মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জী ঘোষণা করেছিলেন এই করোনা পরিস্থিতিতে বিদ্যালয়ের শিশুদের তিন কেজি করে চাল এবং তিন কেজি আলু দেওয়া হবে ।

সেইমত সব স্কুলেই দেওয়া হচ্ছে । নাজিরপুর বিদ্যাপীঠের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক এস.আই এর কাছে রিপোর্ট পাঠিয়েছেন স্কুলের ১০০ শতাংশ বাচ্চাকে মিড ডে মিলের চাল আলু দেওয়া হয়ে গেছে বলে । কিন্তু টিনা ভৌমিক সাহা মহাশয়া রিপোর্ট খতিয়ে দেখতেই ধরা পরে যে এখনও বিদ্যালয়ের ২০ থেকে ৩০ জন্ মিড ডে মিলের বরাদ্দ নেয়নি ।

টিনা ভৌমিক মহাশয়ার অভিযোগ যদি সকল শিশু মিড ডে মিলের বরাদ্দ না নিয়ে থাকে সেক্ষেত্রে কিভাবে তিনি এস.আই কে ১০০ % রিপোর্ট পাঠালেন ?

আসলে ঘটনার সুত্রপাত গত ১ ই লা মে । টিনা মহাশয়া এক দোকানদারের কাছ থেকে বেশ কয়েক কিলো আলু কেনেন । আলু কিনতে গিয়ে তার চোখে পরে আলুগুলি সবই ৩ কেজি করে প্যাকেট করা আছে । এটি দেখে তার সন্দেহ হয় । এবং একটু খোঁজ নিতেই ধরা পরে আসল তথ্য ।

আরও পড়ুনঃ সরকারী কর্মচারীদের বেতন কাটা যাবে না , হাইকোর্টের স্তগিতাদেশ

জানা যায় সেই আলুগুলি নাজিরপুর বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ওই দোকানদারকে বিক্রি করেছেন । টিনা ভৌমিক মহাশয়া খোঁজ নিয়েই থেমে যান নি । তিনি সরাসরি চলে যান সেই স্কুলে এবং প্রধান শিক্ষককে হাতে নাতে ধরেন ।

জানা যায় বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক কোনও ম্যানেজম্যান্টের সঙ্গে কথা না বলেই মিড ডে মিলের আলু বিক্রি করেছেন । যদিও শিক্ষক এর সাফাই আলু পোঁচে নষ্ট হয়ে যেতে পারে বলে তিনি বিক্রি করেছেন । এখানে টিনা মহাশয়ার বক্তব্য যেহেতু সেটা স্কুলের সম্পদ তাই সেই কাজ ম্যানেজমেন্টকে জানিয়ে করতে হত । যেটাতে দশের অধিকার সেই জিনিস কেউ একা নিলে তাকে চুরি বলে ।

নদীয়া জেলার জনপ্রতিনিধি টিনা ভৌমিক সাহা ঘটনাটি পুলিশ এবং বিডিও সাহেবকে জানান । এবং জানান প্রশাসনিকভাবে ওই শিক্ষকের ব্যবস্থা নেওয়া হবে । টিনা মহাশয়ার একটি ফেসবুক পেজ রয়েছে সেই পেজে এই পুরো ঘটনাটি শেয়ার করতেই তা ভাইরাল হয়ে যায় ।

বিপুল সংখ্যক মানুষ ওই জনপ্রতিনিধিকে এই কাজের জন্য বাহবা দিয়েছেন । প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন তার সেই পোস্টটিকে । টিনা ভৌমিক সাহা জানিয়েছেন “এই করোনা পরিস্থিতিতে যেখানে মাননীয়া মুখ্যমন্ত্রী দিনরাত মানুষের জন্য পরিশ্রম করে চলেছেন । সেখানে ওই শিক্ষক চল্লিশ পঞ্চাশ হাজার টাকা মাইনে পাওয়া সত্ত্বেও শিশুদের তিনকেজি আলুর লোভ সামলাতে পারছেন না । তার মনুষ্যত্ব বলে কিছু নেই ।”

আলু চুরি করতে গিয়ে ধরা খাওয়ার পর কি হল দেখুন সেই ভিডিও…

Important Links

শিক্ষা ও চাকরি সংক্রান্ত সকল তথ্য পেতে এখানে ক্লিক করুন

সব খবর সবার আগে পেতে এখানে ক্লিক করুন

To Update in English News – CLICK HERE

মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক সংক্রান্ত তথ্য পেতে এখানে ক্লিক করুন

The acting headmaster was caught stealing potatoes from the mid-day-meal