DMCA.com Protection Status

কোন পদ্ধতিতে নিয়োগ করা হবে ১৬৫০০ প্রাথমিক শিক্ষক ?

Spread the love
wb primary teachers recruitment process
wb primary teachers recruitment process

কোন পদ্ধতিতে নিয়োগ করা হবে ১৬৫০০ প্রাথমিক শিক্ষক ?

wb primary teachers recruitment process : রাজ্যের প্রাথমিক স্কুলে প্রাইমারি টিচার পদে ১৬,৫০০ টি শূন্যপদের জন্য দরখাস্ত নেওয়া হচ্ছে। নিয়োগ করবে পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষা পর্যদ।

JOIN : – WB PRIMARY TET WHATSAPP GROUP


২০১৪ সালে ‘টেড’ পাশ প্রার্থীরা ডি.এড/ডি.এল.এড/বি.এড কোর্স পাশ করে থাকলে আবেদন করতে পারেন। ২০১৪ সালের যে সব ‘টেট’ পাশ প্রার্থীরা প্রাথমিক শিক্ষা পর্যদের বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী (Memo no. 1915/BPE/2020, date : 23.11.2020) ২৫ নভেম্বর থেকে ১ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনলাইনে ট্রেন্ড প্রার্থী হিসাবে নাম নথিভুক্ত করেছিলেন, শুধুমাত্র তাঁরাই এই নিয়োগের জন্য এখন দরখাস্ত করতে পারবেন।

বয়স হতে হবে ১-১-২০২০ এর হিসাবে ১৮ থেকে ৪০ বছরের মধ্যে। তপশিলী, ও.বি.সি রা যথারীতি বয়সে ছাড় পাবেন।

আরও পড়ুনঃ প্রাইমারী টেট পরীক্ষায় কিভাবে আবেদন করবেন ?

শূন্যপদ:– ১৬,৫০০ টি।

মূলমাইনে :– ২৮,৯০০ টাকা। এছাড়াও অন্যান্য ভাতা পাবেন।

তপশিলী জাতি, তপশিলী উপজাতি, ও.বি.সি-এ ক্যাটেগরি, ও.বি.সি -বি ক্যাটেগরি, এক্সেমটেড ক্যাটেগরি ও প্রতিবন্ধীদের জন্য সরকারি নিয়মানুযায়ী শূন্যপদ সংরক্ষিত। প্যারা টিচারদের জন্য ১০% সীট সংরক্ষিত।

প্রাইমারী শিক্ষক নিয়োগের প্যানেল কিভাবে তৈরি হবে ?


প্রার্থী বাছাই হবে ২০১৬ সালের পশ্চিমবঙ্গ প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ বিধি অনুযায়ী। এজন্য প্রার্থীদের ভাইভো ভোস /ইন্টারভিউ ও অ্যাপ্টিটিউট টেস্ট হবে। এই পরীক্ষা হবে ১০ জানুয়ারি থেকে ১৭জানুয়ারি পর্যন্ত। সফল প্রার্থীদের এরপর হবে ১০ নম্বরের ইন্টারভিউ।

চূড়ান্ত তালিকা তৈরির সময় নম্বর বণ্টনের বিন্যাস নিচে দেওয়া হল :–

অ্যাকাডেমিক স্কোর :― অ্যাকাডেমিক স্কোরে মোট ১০০ নম্বর। এর মধ্যে
মাধ্যমিকের জন্য ― ১০ নম্বর,
উচ্চমাধ্যমিকের জন্য ―১৫ নম্বর,
পেশাগত যোগ্যতায়― ২০ নম্বর,
টিচার এলিজিবিলিট টেস্ট (টেট) এর জন্য ― ৪০ নম্বর,
পাঠ্যাতিরিক্ত যোগ্যতায় ― ৫ নম্বর,
ইন্টারভিউয়ের জন্য ― ১০ নম্বর।


শিক্ষাগত যোগ্যতায় পাওয়া নম্বরের ক্ষেত্রে স্কোরিং কীভাবে হবে ?


মাধ্যমিকে আছে ১০ নম্বর। মাধ্যমিকে ১০০% পেলে ১০ নম্বর পাবেন। হিসাব করবেন এইভাবে : মাধ্যমিকে পাওয়া মোট শতকরা নম্বরের ১০% হবে স্কোর।
যেমন – মাধ্যমিকে ৮০% নম্বর পেলে (৮০×১০%) = ৮ নম্বর, ৭০% নম্বর পেলে ৭, ৬০% নম্বর পেলে ৬, ৫৫% নম্বর পেলে ৫.৫ নম্বর পাবেন। মাধ্যমিকে শতকরা হার নির্নয়ের সময় অ্যাডিশনাল বিষয়ের নম্বর ধরা হবে না।

উচ্চমাধ্যমিকে আছে ১৫ নম্বর। উচ্চমাধ্যমিকে ১০০% পেলে ১৫ নম্বর পাবেন। হিসাব করবেন এইভাবে : উচ্চমাধ্যমিকের মোট শতকরা নম্বরের ১৫% হবে স্কোর। উচ্চমাধ্যমিকে ৯০% নম্বর পেলে (৯০×১৫%) = ১৩.৫ নম্বর, ৭০% নম্বর পেলে ১০.৫ নম্বর, ৫৫% নম্বর পেলে ৮.২৫ নম্বর পাবেন।

পেশাগত যোগ্যতায় ২০ নম্বর, ৫০% বা তার বেশি থেকে ৭০% এর কম নম্বর পেলে ১৭ নম্বর আর ৫০% এর কম নম্বর থাকলে ১৫ নম্বর পাবেন।

টির্চাস এলিজিবিলিটি টেস্ট (টেট) এর জন্য ৪০ নম্বর আছে। ‘টেট’ পরীক্ষায় ১০০ নম্বরের মধ্যে ৬০(তপশিলী, ও.বি.সি, প্রতিবন্ধী ও এক্সেমটেড ক্যাটেগরি হলে ৫৫) নম্বর যাঁরা পেয়েছেন, তাঁরা কোয়ালিফাই করতে পেরেছেন।

শতকরা হার নির্ণয় করা হবে ‘টেট’ পরীক্ষায় পাওয়া শতকরা হারের ৪০%। যেমন ‘টেট’ পরীক্ষায় ৬০% নম্বর পেলে (৬০×৪০%) = ২৪ নম্বর পাবেন। ‘টেট’ পরীক্ষায় ৮০% নম্বর পেলে ৩২ নম্বর, ৭০% নম্বর পেলে ২৮ নম্বর পাবেন।

পাঠ্যাতিরিক্ত যোগ্যতার ক্ষেত্রে যে ৫ নম্বর দেওয়া হবে তা এই ভাবে। :–


(১) গেমস ও স্পোর্টসের সার্টিফিকেট থাকলে ১ নম্বর ।
(২) এন.সি.সি র নূন্যতম ‘এ’ সার্টিফিকেট থাকলে ১ নম্বর ।
(৩) আর্টস অ্যান্ড লিটারেচার (রাজ্য বা জাতীয় স্তরের খবরের কাগজ বা ম্যাগাজিনে প্রবন্ধ, ছোট প্রবন্ধ, নাটক, কবিতা লিখে থাকলে) -১ নম্বর,
(৪) পারফর্মিং আর্ট (ড্রামা) (ন্যাশনাল স্কুল অফ ড্রামা বা রাজ্য কিংবা কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া সার্টিফিকেট থাকলে) ১ নম্বর,
(৫) মিউজিক (রাজ্য বা কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া মিউজিক বা ইন্সট্রুমেন্টাল মিউজিকের সার্টিফিকেট থাকলে)-১ নম্বর। ইন্টারভিউয়ে থাকবে ১০ নম্বর।

দরখাস্ত করবেন অনলাইনে আবেদন পদ্ধিত ইতিমধ্যেই শুরু হয়ে গেছে । চলবে ৬ জানুয়ারি পর্যন্ত।

এই ওয়েবসাইটে :

http://www.wbbpe.org/

http://wbbprimaryeducation.org/

কিভাবে অনলাইনে আবেদন করবেন তার পদ্ধতি জানার জন্য নিচের লিংকে ক্লিক করুন –

প্রাইমারী টেট পরীক্ষায় কিভাবে আবেদন করবেন ?

শিক্ষা , চাকরি ও ব্যবসা সংক্রান্ত খবরের সেরা ঠিকানা কর্মসাথী ডট কম !