কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ে মুখ খুললেন এম.এইচ.আর.ডি মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল

Spread the love

কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ে মুখ খুললেন এম.এইচ.আর.ডি মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল

কলেজ ও বিশ্ব বিদ্যালয়ের পরীক্ষা হবে কি হবে না ! এই বিষয়ে জট কাটতেই চাইছে না । আজ এম.এইচ.আর.ডি মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক ইউজিসির সিদ্ধান্ত নিয়ে মুখ খুললেন । তিনি বললেন যদি পরীক্ষা না নেওয়া হয় তাহলে ছাত্র ছাত্রীদের উপর করোনা ষ্ট্যাম্প লেগে যাবে ।

এবিষয়ে উল্লেখ ইউ মার্চ এপ্রিল নাগাদ রায় দেয় প্রত্যেক রাজ্য তাদের পরিস্থিতি অনুসারে কলেজ বিশ্ব বিদ্যালয়ের পরীক্ষা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারবে । সেই মত পশ্চিমবঙ্গে বিশ্ব বিদ্যালয়ের উপাচার্য এবং সিখকা সচিব দের নিয়ে শিক্ষামন্ত্রী উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক করেন । এবং সেখানে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি যেহেতু ভয়ঙ্কর হয়ে উঠছে তাই কোনভাবেই পরীক্ষা নেওয়া সম্ভব নয় ।

কিন্তু এর পর হঠাৎ করেই জুলাই মাসে ইউজিসি সংশোধিত গাইডলাইন প্রকাশ করে বলা হয় প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়কে চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা নিতেই হবে । এরপরেই শুরু হয় বিতর্ক পশ্চিমবঙ্গ জানিয়ে দেয় মূল্যায়ন প্রক্রিয়া প্রায় শেষের পথে তাই পরীক্ষা নেওয়া কোনভাবেই সম্ভব নয় । উত্তরে ইউজিসি জানিয়ে দেয় পরীক্ষা না নেওয়া হলে নেওয়া হবে ব্যবস্থা ।

এর উত্তরে মুখ্যমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীকে চিঠি লেখেন ইউজিসির এই সিদ্ধান্ত বাতিলের অনুরোধ রাখেন । এরপর গত শুক্রবার মুখ্যমন্ত্রী সাংবাদিক সম্মেলনে জানিয়ে দেয় তিনি শিক্ষাদপ্তরকে নির্দেশ দিয়েছেন ইউজিসির পূর্বেকার সিদ্ধান্তকে কার্যকরী করার । অর্থাৎ রাজ্য যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে পরীক্ষা নেওয়া ব্যাপারে সেটাকেই কার্যকরী করার । মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যের পর অনেক ছাত্র ছাত্রী আশ্বস্থ হয়েছিল হয়তো পরীক্ষা দিতে হবে ।

কিন্তু আজ শনিবার সন্ধ্যায় এম.এইচ.আর.ডি মন্ত্রী রমেশ পোখরিয়াল নিশঙ্ক ইউজিসির এই সিদ্ধান্তের ব্যাপারে নিজের বক্তব্য জানালেন । তিনি হিন্দুস্থান টাইমস কে একটি সাক্ষাতকারে জানিয়েছেন ইউজিসির চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত হঠাৎ করে নেওয়া হয় নি । এর জন্য একটি দেশের সেরা শিক্ষাবিদদের নিয়ে কমিটি তৈরি করা হয় । এবং এই কমিটি সবকিছু খতিয়ে দেখার পর চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষার বাধ্যতামুলক করার পক্ষে মত দিয়েছে ।

তিনি আরও জানিয়েছেন অন্যান্য সেমিস্টারগুলিতে আভ্যন্তরীণ মুল্যায়নের ক্ষেত্রে ফল প্রকাশ কোর্টে কোন অসুবিধা নেই । কিন্তু চূড়ান্ত বর্ষের পরীক্ষা নিতেই হবে । নাহলে সারা জীবনের জন্য ছাত্রছাত্রীদের উপর করোনা ষ্ট্যাম্প লেগে যাবে । আজ ছাত্ররা বুঝতে পারছে না , কিন্তু এটা তাদের ভবিষ্যতের কথা ভেবেই করা হচ্ছে ।

রমেশ পোখরিয়াল আরও জানিয়েছেন যদি পরীক্ষা না নেওয়া হয় সেক্ষেত্রে এই ছাত্রছাত্রীরা যখন কাজের খোঁজে কোন কোম্পানিতে যাবে তখন তাদের আলাদাভাবে দেখা হবে । বলা হবে এরা তো করোনা কালে পাশ করা ছাত্র ছাত্রী । এটা কি কোন ছাত্র ছাত্রী চাইবে তাদের সাথে এমন হোক !

তিনি সরাসরি না বললেও যে কয়েকটি রাজ্য এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছে তাদের সতর্ক করে দিলেন । তিনি বলেছেন ৯০ % কলেজ ও বিশ্ব বিদ্যালয় এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানিয়েছে । এবং যারা ইউ জি সিএর এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন তারা যেন মনে রাখে রাজ্য পেরিয়ে তাঁকে দেশের বিভিন্ন জায়গায় আসতে হবে সেখানে ইউ জি সি সকলকে একাত্ব করে । তাই ইউ জি সির এই সিদ্ধান্তকে সকলকে সম্মান দিতে হবে এবং মেনে নিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা নিতে হবে ।

এই পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নেওয়া কতটা যুক্তিযুক্ত ? আপনার মতামত জানাতে নীচে কমেন্ট করুন ।

MHRD মন্ত্রীর রমেশ পোখরিয়াল সাক্ষাতকার ভিডিওটি দেখুন

সাম্প্রতিক পোস্টসমূহ

4 comments

Skip to comment form

    • Rajesh samnata on July 18, 2020 at 9:16 pm
    • Reply

    Exam of final year should be cancelled.

    • Masud khan on July 18, 2020 at 10:26 pm
    • Reply

    Kivabe somvob exam?? , exam dite giye amra ki corona affected hoi etai chai6en naki apnara, Orokom koto exam diye koto dami dami certificate file e go6ano a6e kono kaje lag6ena , r eta ekdom ki kaje lagbe se bhujtey par6i.

    • manoranjan barman on July 18, 2020 at 10:45 pm
    • Reply

    it is wrong decession .

    • Riya on July 19, 2020 at 8:49 am
    • Reply

    No we don’t want exam

Leave a Reply

Your email address will not be published.